১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৭:১৫ শনিবার
শিরোনামঃ
নিরব-স্পর্শিয়ার সায়েন্স ফিকশন সিনেমা ‌`জল কিরণ বাকেরগঞ্জে অস্ত্র মাদক জালটাকা সহ একাধিক মামলার আসামি কে বাচাতে অপপ্রচার, বিব্রত উপজেলা যুবদল ও স্থানীয়রা নওগাঁর রাণীনগরের খেটে-খাওয়া নিম্ম আয়ের মানুষদের মাঝে স্বস্তি ফিরেছে টিসিবিতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা পদক পাচ্ছেন চেয়ারম্যান মঞ্জুর মোরশেদ লালমোহন তজুমদ্দিন এ শান্তির রূপ দিয়েছেন এমপি শাওন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বালাগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা আজ এস আর মাল্টিমিডিয়া’র ৫ম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ষ্টার এ্যাওয়ার্ড ২০২১ বাকেরগঞ্জ মহাসড়কে অবৈধ দোকান সরাতে পারছে না প্রশাসন, চাঁদা নেয় প্রভাবশালীরা নওগাঁর বদলগাছীতে সার ডিলার এবং কৃষি অফিসের কারসাজিতে কৃষক দিশেহারা সিলেটে শুরু হলো দুই দিনব্যাপী বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসব আন্তর্জাতিক সেমিনারে দুবাই যাচ্ছেন ডা. এম মোকতার হোসেন ও ডা. ইব্রাহিম মাসুম বিল্লাহ

নওগাঁর বদলগাছীতে পছন্দের ক্লিনিকে সিটি স্ক্যান না করায় রোগীর ফাইল ছুড়ে মারলেন ডাক্তার

মুজাহিদ হোসেন, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ
  • Update Time : বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২২,
  • 218 Time View

মুজাহিদ হোসেন, নওগাঁ জেলা প্রতিনিধিঃ

বদলগাছীতে চিকিৎসাধীন মহিলা রোগীর সাথে কর্তব্যরত ডাক্তারের দুর্ব‍্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। জানা যায়, নওগাঁর বদলগাছী
উপজেলার বদলগাছী সদর ইউপির জিধিরপুর গ্রামের জনৈক মিঠু হাসানের স্ত্রী ইয়াসমিন আক্তার (৩৩) গত ৩ ফেব্রুয়ারি প্রতিবেশীর দ্বারা আহত হলে ঐ দিনে বদলগাছী উপজেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। চিকিৎসারত অবস্থায় তার মাথার সিটি স্ক্যান করার পরামর্শ দেন ডাক্তার মোহাম্মদ আল মামুন দেওয়ান। রোগী ইয়াসমিন আক্তার বলেন, ভর্তি থাকা অবস্থায় ৬ই ফেব্রুয়ারি আমার সিটি স্ক্যান
করার জন‍্য বললে আমার স্বামী মিঠু হাসান বদলগাছীতে কোনও সিটি স্ক্যান
মেশিন না থাকায় আমাকে নওগাঁর প্রাইম ল‍্যাবে নিয়ে যায়। সেখান থেকে সিটি স্ক‍্যান করিয়ে আসলে ৭ই ফেব্রুয়ারি সকাল আনুমানিক সাড়ে ১০ টার দিকে ডাক্তার মোহাম্মদ আল মামুন দেওয়ান রোগী দেখতে রাউন্ডে আসলে আমি
ডাক্তারকে রিপোর্ট দেখতে দিলে রিপোর্টটি হাতে নিয়ে আমার মুখ বরাবর ছুঁড়ে মারেন এবং বলেন এই ল্যাব থেকে রিপোর্ট করেছেন কেন। ল‍্যাব এইড থেকে সিটিস্ক্যান করতে বলা হয়েছিল সেখানে করেন নাই কেন। বলে রিপোর্টটি না দেখেই রাগান্বিত হয়ে তিনি চলে যান। সরেজমিনে তথ্য অনুসন্ধানকালে
পাশ্ববর্তী বেডের রোগী পিংকি’র সাথে এ ব‍্যাপারে কথা বললে তিনি বলেন ১৯
নং বেডের রোগীর সিটিস্ক্যান রিপোর্ট ডাক্তার হাতে নিয়ে রাগারাগি করে রিপোর্টটি ফেলে দেয় এবং বলে ওই ল্যাবে পরীক্ষা কে করতে বলেছে।আমার রিপোর্টটিও ফেলে দেন এবং অন্য রোগীর সাথেও খারাপ ব্যবহার করে কোনও পরামর্শ না দিয়েই চলে যান ডাক্তার আবদুল্লাহ আল মামুন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক রোগী এবং হাসপাতালের স্টাফ বলেন, সমাজসেবা অফিসের প্রতিবন্ধী জরিপ ফরমে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা স্বাক্ষর নিতে
আসলেও ডাক্তার মোহাম্মদ আল মামুন দেওয়ান বিড়ম্বনাসহ দুর্ব্যবহার করেন।

ডাক্তার মোহাম্মদ আল মামুন দেওয়ান এর সাথে এবিষয়ে মোবাইল ফোনে কথা বললে
তিনি বলেন, রোগীর সাথে খারাপ ব্যবহার করা হয়নি। তবে সামান্য ভুল বুঝাবুঝি
হয়েছে মাত্র। প্রতিবন্ধী জরিপ ফরমে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা স্বাক্ষর নিতে আসলে তাদের
সাথেও আপনি দুর্ব্যবহারের বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, অনেকেই অন্যায়
আবদার নিয়ে আসে। আমি একজন ডাক্তার হিসেবে সবাইকে তো প্রতিবন্ধী
হিসেবে শনাক্ত করতে পারি না। তাই অনেকেই মন খারাপ করে এর বাহিরে কিছু না।

এবিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ কানিজ ফারহানা বলেন,
এব্যাপারে আমার কাছে কেউ কখনো অভিযোগ করেনি। আর এ ধরনের ঘটনা ঘটলে সর্বপ্রথম আমারই জানার কথা। এই প্রথম আপনার কাছে জানতে পারলাম। তবে তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরূদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category

Bangladesh-It-Host