১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ সকাল ৮:৪১ শনিবার
শিরোনামঃ
নিরব-স্পর্শিয়ার সায়েন্স ফিকশন সিনেমা ‌`জল কিরণ বাকেরগঞ্জে অস্ত্র মাদক জালটাকা সহ একাধিক মামলার আসামি কে বাচাতে অপপ্রচার, বিব্রত উপজেলা যুবদল ও স্থানীয়রা নওগাঁর রাণীনগরের খেটে-খাওয়া নিম্ম আয়ের মানুষদের মাঝে স্বস্তি ফিরেছে টিসিবিতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা পদক পাচ্ছেন চেয়ারম্যান মঞ্জুর মোরশেদ লালমোহন তজুমদ্দিন এ শান্তির রূপ দিয়েছেন এমপি শাওন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বালাগঞ্জে প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা আজ এস আর মাল্টিমিডিয়া’র ৫ম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও ষ্টার এ্যাওয়ার্ড ২০২১ বাকেরগঞ্জ মহাসড়কে অবৈধ দোকান সরাতে পারছে না প্রশাসন, চাঁদা নেয় প্রভাবশালীরা নওগাঁর বদলগাছীতে সার ডিলার এবং কৃষি অফিসের কারসাজিতে কৃষক দিশেহারা সিলেটে শুরু হলো দুই দিনব্যাপী বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক উৎসব আন্তর্জাতিক সেমিনারে দুবাই যাচ্ছেন ডা. এম মোকতার হোসেন ও ডা. ইব্রাহিম মাসুম বিল্লাহ

বই হোক হৃদয়ের স্পন্দন”

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, আগস্ট ২৮, ২০২২,
  • 26 Time View

 

বর্তমান সময়ে বিজ্ঞানের সাফল্য এবং উৎকর্ষতায় পুরো বিশ্ব এগিয়ে গেছে অনেকদূর। তাদের নতুন নতুন আবিষ্কারের সুবিধা ভোগ করছে সারা পৃথিবীর মানুষ। এরমধ্যে অন্যতম হলো মোবাইল ফোন। এই ফোন আমাদের জন্য যতটা সুবিধা বয়ে এনেছে, ঠিক ততটাই ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমাদের দেশের আপামর জনসাধারণ এমনকি তরুণরাও পিছিয়ে নেই এর যথেচ্ছ ব্যবহারে। প্রযুক্তি নিশ্চয়ই মানুষের কল্যাণের জন্য কিন্তু অতীব দুঃখের বিষয় হলো, আমাদের তরুণ প্রজন্ম আজকাল মোবাইলে এত বেশি সময় অপচয় করছে যে, তাদের বুদ্ধিবৃত্তির বিকাশ থমকে গেছে। সাহিত্য মানুষের মননকে বিকশিত করে। ভালো একজন মানুষ হতে উদ্বুদ্ধ করে। এরজন্য প্রচুর বই পড়া দরকার। যেহেতু বই কেনার প্রতি বর্তমান প্রজন্মের অতি অনাগ্রহ, তাই তারা উদ্যোগ নিয়েছে অন্তত কিছু তরুণদের মাঝে বিনামূল্যে বই বিতরণ করবে, যাতে তাদের মানসিক বিকাশ ত্বরান্বিত হয় এবং মোবাইলের আশক্তি থেকে সরে এসে একজন সত্যিকারের সৃজনশীল মানুষ হয়ে উঠতে পারে।
বই হোক হৃদয়ের স্পন্দন এ-র সভাপতি কবি ও সাহিত্যিক সুব্রত কুমার মোহন্ত বললেন— বই মানুষের হৃদয়কে বিকশিত করে, জাগ্রত করে। সকল জ্ঞানের আধার হলো বই, বই এবং বই। আসুন, কিছুটা সময়ের আমরা সদ্ব্যবহার করি, বেশিবেশি বই পড়ি। বই পড়তে সকলকে উৎসাহিত করি। ‘ বই হোক হৃদয়ের স্পন্দন ‘ এই শ্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন তরুণ লেখক মিলন মাহমুদ এবং তিনি পাঠকের উদ্দেশ্য বলেন–একমাত্র বই-ই পারে মানুষের বিবেকবোধ জাগ্রত করতে। মানসিক প্রশান্তি দিতে। একজন ভালো মানুষ হতে হলে বই পড়া অপরিহার্য।

সংগঠনটির পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে প্রতিষ্ঠাতা লেখক সেলিম হাসান বলেন -‘ বই হোক হৃদয়ের স্পন্দন ‘ এটি মূলত পাঠক তৈরি করার একটি সংগঠন। বই পড়তে উদ্বুদ্ধ করার জন্য সংগঠনটি পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করবে ইনশাআল্লাহ ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category

Bangladesh-It-Host